শুক্রবার   ১৮ জুন ২০২১   আষাঢ় ৪ ১৪২৮   ০৮ জ্বিলকদ ১৪৪২

 ফরিদপুর প্রতিদিন
সর্বশেষ:
আগামী জুনে চলবে মেট্রো রেলের উত্তরা-আগারগাঁও অংশ বৈশ্বিক শান্তি সূচকে সাত ধাপ উন্নতি বাংলাদেশের গোয়ালন্দে মৎস্য চাষিদের মাঝে মাছের খাদ্য বিতরণ মহম্মদপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এক ব্যতিক্রম স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র আগামী মার্চে শুরু হবে পাতাল রেলের কাজ বার্ড ফ্লুর টিকা তৈরি হচ্ছে ঝিনাইদহে জুলাই থেকে বড় পরিসরে শুরু হবে টিকাদান
৪৭

সালথায় ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা তরুনীর পাশে জেলা ছাত্রলীগ

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২ মে ২০২১  

ফরিদপুরের সালথায় বিয়ের প্রলোভনে তরুণীকে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে ফেলা মাতুব্বর (৩১) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। পরে ওই তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে দুই লাখ টাকায় আপস করে গর্ভের সন্তান নষ্টের সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেয়ার অভিযোগ ওঠে স্থানীয় কতিপয় মাতুব্বর ও সমাজপতিদের বিরুদ্ধে। পরে জেলা ছাত্রলীগের হস্তক্ষেপে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া শুরু করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, গত সোমবার (৩ মে) এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর জেলাজুড়ে বিষয়টি নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। সংবাদটি দেখে ফরিদপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তামজীদুল রশিদ চৌধুরী রিয়ান যোগাযোগ করেন ফরিদপুরের পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামানের সঙ্গে। পরে মঙ্গলবার (৪ মে) দুপুরে সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশিকুজ্জামানকে সঙ্গে নিয়ে ওই তরুণীর বাড়িতে গিয়ে তার খোঁজ খবর নেন জেলা ছাত্রলীগের নেতারা। এরপর অভিযুক্ত ফেলা মাতুব্বরসহ বেশ কয়েকজনকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে সালথা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়।

এছাড়া তামজীদুল রশিদ চৌধুরী রিয়ানের নির্দেশে সালথা উপজেলা ছাত্রলীগ ভুক্তভোগী তরুণীর বাড়ির আশপাশে স্বার্বক্ষণিক পাহারার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এবং ধর্ষণের শিকার ওই তরুণীর পরিবারের পাশে দাঁড়াতে স্থানীয় নেতাকর্মীদেরও অনুরোধ জানানো হয়েছে।

এ বিষয়ে ফরিদপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তামজীদুল রশিদ রিয়ান বলেন, ‘দেশের ও স্থানীয় কয়েকটি গণমাধ্যমে প্রাচারিত সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারি একটি অসহায় মেয়ে ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পরেও সালিশে মিমাংসা হয়েছে। এ কথা শুনে আমরা খুবই মর্মাতহ হয়েছি। এ সময় নিজ উদ্যোগেই পরিবারটির পাশে দাঁড়িয়ে তাকে সকল প্রকার সাহায্য করার সিদ্ধান্ত নিই। সে জন্যই আজ সালথায় গিয়ে মেয়েটি যাতে ন্যায়বিচার পায় সে ব্যবস্থা করেছি। তরুণীর পরিবারকে বলে এসেছি, সামনে আইনি প্রক্রিয়ায়ও সাহায্য লাগলে ফরিদপুর জেলা ছাত্রলীগ তাদের পাশে থাকবে।’

এ বিষয়ে সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশিকুজ্জামান বলেন, ‘নারানদিয়া গ্রামের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। এজাহারভুক্ত একজনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারে অভিযান চালানো হচ্ছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত সংবাদ সম্মেলন করে জানানো হবে।’

 ফরিদপুর প্রতিদিন
 ফরিদপুর প্রতিদিন
এই বিভাগের আরো খবর