সোমবার   ০৪ জুলাই ২০২২   আষাঢ় ২০ ১৪২৯   ০৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

 ফরিদপুর প্রতিদিন
সর্বশেষ:
ফরিদপুরে স্কুল মাঠে পশুর হাট বন্ধ করলেন ইউএনও প্লাস্টিক বর্জ্য থেকে হবে তরল জ্বালানি ঈদুল আযহা উপলক্ষে এক লক্ষ তিনশত মে.টন ভিজিএফ চাল বরাদ্দ বোয়ালমারীতে ১০ ভিক্ষুক পেলেন ১০ ছাগল সরকার আমকে বিশ্ববাজারে নিতে কাজ করছে
২৭

রাজবাড়ী থেকে বিলুপ্ত প্রজাতির তক্ষক উদ্ধার

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৩ জুন ২০২২  

রাজবাড়ী থেকে বিলুপ্ত প্রজাতির একটি তক্ষক উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার (২২ জুন) দুপুরে জেলা শহরের অংকুর স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে তক্ষকটি উদ্ধার করা হয়।

জানা গেছে, ওই স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রধান অফিস সহকারী কল্লোল আহমেদ স্কুলের উন্নয়নের কাজের জন্য আসবাবপত্র সরানোর সময় আলমারি খুললে প্রথমে তক্ষকটি দেখতে পান।  

কল্লোল আহমেদ বলেন, আমি আলমারিটা খুলে হঠাৎ তক্ষকটি দেখে প্রথমে ভয় পাই। পরে স্কুলের অন্য শিক্ষকদের ডেকে এনে এটাকে উদ্ধার করি। এ সময় অনেকে আমাকে নানা রকম প্রলোভন দেখিয়েছিলেন যে- এটার অনেক দাম। তক্ষকটি বাইরে বিক্রি করলে অনেক টাকা পাওয়া যাবে। তবে আমি সবার কথা উপেক্ষা করে একটি পলিথিন ব্যাগে করে তক্ষকটি নিয়ে জেলা সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ে নিয়ে আসি। এবং এটা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার হাতে তুলে দেই।  

রাজবাড়ী সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. খায়ের উদ্দিন আহমেদ বাংলানিউজকে বলেন, কল্লোল আহমেদ তক্ষকটিকে উদ্ধার করে আমাদের এখানে নিয়ে এসেছেন। তক্ষকটি একটি বিলুপ্ত প্রজাতির প্রাণী। এই তক্ষকটি প্রায় ১ ফুট লম্বা। এই সমস্ত প্রাণীর ক্ষেত্রে দেখা যায় যে, অনেক সময় প্রতারকরা বিভিন্নভাবে সাধারণ মানুষকে প্রতারিত করার ক্ষেত্রে ব্যবহার করে থাকেন।  

কথিত আছে, এটা দিয়ে নানারকম ওষুধ তৈরি হয় এবং এর বাজারমূল্য কোটি টাকা। শুনেছি এই ভদ্রলোককেও অনেকেই বাধা দিয়েছিলেন যেন এখানে তক্ষকটি না আনতে। কিন্তু কল্লোল আহমেদ কারও কথা না শুনে এখানে নিয়ে এসেছেন- এর জন্য আমরা তাকে ধন্যবাদ জানাই।

ডা. খায়ের উদ্দিন আহমেদ আরও বলেন, আমরা বন বিভাগের সঙ্গে কথা বলেছি তারা এটাকে প্রকৃতিতে অবমুক্ত করে দিতে বলেছে। পরে আমরা তক্ষকটিকে প্রকৃতিতে অবমুক্ত করেছি।  

 ফরিদপুর প্রতিদিন
 ফরিদপুর প্রতিদিন
এই বিভাগের আরো খবর