সোমবার   ২৪ জুন ২০২৪   আষাঢ় ১১ ১৪৩১   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

 ফরিদপুর প্রতিদিন
সর্বশেষ:
অ্যান্টিভেনমের ঘাটতি না রাখতে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নির্দেশ ভাঙ্গা-যশোর রেল লাইন: চার জেলার যোগাযোগে নতুন দিগন্ত সরকারকে ১২৫ কোটি ডলার দিচ্ছে উন্নয়ন সহযোগীরা বাংলাদেশে চালু হবে রু-পে কার্ড, ভারতে টাকা-পে সেনাপ্রধানের দায়িত্ব নিলেন ওয়াকার-উজ-জামান ঈদযাত্রা: পদ্মাসেতুতে ১৩ দিনে টোল আদায় ৪২ কোটি টাকা খালেদা জিয়ার হৃদযন্ত্রে পেস মেকার বসানোর কাজ চলছে: আইনমন্ত্রী পুলিশের এক অতিরিক্ত আইজিপি ও ৯ ডিআইজিকে বদলি-পদায়ন
১৭৭

ফাইনাল বৃষ্টিতে ভেস্তে গেলে চ্যাম্পিয়ন হবে যে দল

প্রকাশিত: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

এশিয়া কাপ একেবারে শেষ পর্যায়ে চলে এসেছে। মহাদেশীয় শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে এবার বেশিরভাগ ম্যাচেই বাগড়া দিয়েছে বৃষ্টি।

রোববার বিকালে ফাইনালে ভারতের মুখোমুখি হবে শ্রীলংকা। কলম্বোর আর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে। এদিনও বৃষ্টিতে খেলা ব্যাহত হতে পারে।
ভারতীয় শীর্ষস্থানীয় সংবাদমাধ্যম এবিপি লাইভ ও জি নিউজের এক প্রতিবেদন সূত্রে এ তথ্য বলা হয়েছে।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে— ১৭ সেপ্টেম্বর কলম্বোতে ৯০ শতাংশ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। সেই সঙ্গে ঘণ্টায় ১৫ কিলোমিটার বেগে বাতাস বইতে পারে। ৯৯ শতাংশ মেঘের আবরণ থাকার আশঙ্কা আছে।

ভারত-শ্রীলংকার ফাইনালের মহারণ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৩টায়। এর আধাঘণ্টা আগে অনুষ্ঠিত হবে টস নির্ধারণ। কিন্তু স্থানীয় সময় বিকালে ৯০ শতাংশ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। অর্থাৎ খেলার মাঝেই বৃষ্টি হবে, যা রাত পর্যন্ত আবহাওয়া পরিবর্তন হবে না। দুপুর ১টা থেকে কলম্বোয় বৃষ্টি শুরু হবে। সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত তা চলবে। সেই সময়ে কমপক্ষে ৮০ শতাংশ ভারি বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে।

ফলে এদিন কোনোভাবেই দুদল অন্তত ২০ ওভার করে খেলতে না পারে তা হলে শিরোপা নির্ধারণী ফাইনাল খেলা গড়াবে রিজার্ভডে তে। এর মানে যেখানে খেলা শেষ হবে, পরের দিন সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সেখান থেকে শুরু হবে খেলা হবে। তবে দুই দিনই বৃষ্টিতে ভেসে গেলে দুই দলকে যুগ্মভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হবে।

ফাইনালের ফলে আবহাওয়া বড় ভূমিকা পালন করবে। সেরা একাদশ বাছতে টসের আগে কতটা বৃষ্টি হয়, তা দেখবে উভয় দল। টসের আগে বৃষ্টি হলে এবং পিচ কভারের নিচে থাকলে পিচের প্রকৃতি পালটে যাবে। সে ক্ষেত্রে ম্যাচে টস জয়ী দল লক্ষ্য নির্ধারণ করতে চাইবে। কারণ বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে রান তাড়া করা কঠিন হবে।

গত ২ সেপ্টেম্বর ক্যান্ডিতে ভারত-পাকিস্তান গ্রুপ পর্বের ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেস্তে যায়। প্রবল বৃষ্টিতে সুপার ফোরে সবমিলিয়ে ১৬ ওভার খেলা হয়নি। এই রাউন্ডে ভারত-পাকিস্তান মহারণ রিজার্ভডে’তে গড়ায়। ফাইনালেও সেই সম্ভাবনা রয়েছে।

বিশ্ব ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির নিয়মানুযায়ী, আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচে প্রতি দলকে কমপক্ষে ২০ ওভার করে বল করতে হবে। ভারত বনাম শ্রীলংকা ২০২৩ এশিয়া কাপের ফাইনাল বৃষ্টির কারণে ভেসে গেলে রিজার্ভ ডেতে খেলা হবে। ওই দিনও বৃষ্টিতে ভেস্তে গেলে উভয় দলের মধ্যে ট্রফি ভাগাভাগি হয়ে যাবে।

এর আগেও ভারত-শ্রীলংকা মধ্যে শিরোপা ভাগাভাগি হয়েছে। ২০০২ সালের সেপ্টেম্বরে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি শ্রীলংকায় অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সে বছরও টুর্নামেন্টের অনেক ম্যাচ বৃষ্টিতে ব্যাহত হয়। ফাইনাল ভারত ও শ্রীলংকার মধ্যে হওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু বৃষ্টির কারণে ম্যাচটি রিজার্ভ ডেতেও সম্পূর্ণ করা যায়নি। শেষ পর্যন্ত বাতিল হয়ে যায় খেলা। ভারত ও শ্রীলংকাকে যৌথভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।

 ফরিদপুর প্রতিদিন
 ফরিদপুর প্রতিদিন
এই বিভাগের আরো খবর