সোমবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২১   মাঘ ৫ ১৪২৭   ০৪ জমাদিউস সানি ১৪৪২

 ফরিদপুর প্রতিদিন
সর্বশেষ:
শপথের দিনই মুসলিমদের ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেবেন বাইডেন বইমেলা কবে হবে চূড়ান্ত করবেন প্রধানমন্ত্রী পদ্মায় ধরা পড়লো ২০ কেজি ওজনের বাঘাইড় বাংলাদেশে টিকা পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু সেরামের মাগুরায় বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ১
৫৭

ফরিদপুরে মুড়িকাটা পিয়াজের বাম্পার ফলন

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯ জানুয়ারি ২০২১  

ফরিদপুর জেলায় এ বছর  মুড়িকাটা পিয়াজের বাম্পার ফলন হয়েছে।  জেলার বিভিন্ন স্থানে পিয়াজ তুলতে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষাণীরা।
সদর উপজেলার নর্থচ্যানেল, চরমাধবদিয়া, ঈশান গোপালপুর, অম্বিকাপুর এবং নগরকান্দা-সালথা উপজেলার বিভিন্ন মাঠে মাঠে এখন  পিয়াজ তোলার ধুম পড়েছে। মাঠে মাঠে এখন কৃষানীদের ব্যস্ততা বেড়েছে। 

সালথা উপজেলার কৃষানী হালিমা বেগম জানান, এ অঞ্চলে সবচে বেশী পিয়াজ আবাদ হয়ে থাকে। পিয়াজ লাগানো থেকে শুরু করে খেতে পানি দেওয়া ও আগাছা নিড়ানোর পিয়াজ তোলার পর সেটির মাথা কেটে বাজারে নেবার জন্য প্রস্তুত তারাই করে থাকেন। এছাড়া পিয়াজ তোলা ও কাটার জন্য গ্রামের নারীরা টাকার বিনিময়ে এসব কাজ করে থাকেন। খেত থেকে পিয়াজ তোলার জন্য একজন নারী শ্রমিক দৈনিক  ২ থেকে ৩শ টাকা করে পেয়ে থাকেন। আবার অনেকেই পিয়াজ তোলার পর টাকার পরিবর্তে পিয়াজ নিচ্ছেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শুধুমাত্র নগরকান্দা ও সালথা উপজেলাতেই দুই-তিন হাজার নারী পিয়াজ তোলার কাজটি করছেন। 

পিয়াজ আবাদে দেশের মধ্যে শীর্ষস্থান হচ্ছে ফরিদপুর। এই জেলায় উৎপাদিত পিয়াজ স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করা হয়ে থাকে। 

এ বছর ফরিদপুর জেলায় ৫ হাজার ১শত ৬০ হেক্টর জমিতে মুড়িকাটা পিয়াজ আবাদ করা হয়েছে। যা থেকে প্রায় ৭০ হাজার মেট্রিক টন পিয়াজ উৎপাদিত হবে। বাজারে বর্তমানে প্রতিকেজি মুড়িকাটা পিয়াজ বিক্রি হচ্ছে হচ্ছে ৩০ থেকে ৪০ টাকায়।

কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপ পরিচালক কৃষিবিদ ড. মোঃ হযরত আলী বলেন, গত বছর পিয়াজের দাম বেশি হওয়ায় কৃষকেরা আগ্রহ নিয়ে পিয়াজের আবাদ করেছিল। এ বছর রেকর্ড পরিমাণ জমিতে লাগানো হয়েছিল মুড়িকাটা পিয়াজ। ফলনও হয়েছে আশাতিত। 

 ফরিদপুর প্রতিদিন
 ফরিদপুর প্রতিদিন
এই বিভাগের আরো খবর