শনিবার   ১৫ আগস্ট ২০২০   শ্রাবণ ৩১ ১৪২৭   ২৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

 ফরিদপুর প্রতিদিন
৭৬

ফরিদপুরে দ্বিতীয় দফায় ধসে গেছে শহর রক্ষার বাঁধ

নিউজ ডেস্ক:

প্রকাশিত: ২৮ জুলাই ২০২০  

ফরিদপুরের গত ২৪ ঘণ্টায় ফরিদপুরের পদ্মার পানি ২ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ১১৮ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। জেলার সাদিপুরে বন্যার পানির কারণে দ্বিতীয় দফায় ধসে গেছে শহর রক্ষার বাঁধ। এতে শহরের দিকে ধাবিত হচ্ছে বন্যার পানি। পরিস্থিতি ঠেকাতে কাজ করছে পানি উন্নয়ণ বোর্ড (পাউবো) ও জেলা পুলিশ।

সোমবার (২৭ জুলাই) পর্যন্ত জেলার সাতটি উপজেলার ৫৪১টি গ্রামের প্রায় দুই লাখ মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। দুর্গত এলাকায় খাবার ও বিশুদ্ধ পানির সঙ্কট বিরাজ করছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সোমবার বিকেল ৪টার দিকে শহর সংলগ্ন আলিয়াবাদ ইউপির সাদিপুরে বাঁধ ধসের এ ঘটনা ঘটে। এর আগে গত ১৯ জুলাই একই স্থানে বাঁধ ধসের পর পাউবো সেখানে বালি ভর্তি জিও ব্যাগ ফেলে মেরামত করেছিল। নতুন করে সেখানে বাঁধ ধসের পর ওই সড়কে চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। পুলিশ বাঁধের আশেপাশে প্রহরা বসিয়েছে। 

জেলার প্রায় দুই লাখ মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে দুর্গতদের মাঝে খাবার ও ত্রাণ সহায়তা দেয়া হচ্ছে বলে জানান ডিসি অতুল সরকার।

ফরিদপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সুলতান মাহমুদ জানান, দ্বিতীয় দফায় প্রায় ৩০ মিটার অংশ ধসে যাওয়ার পর বাঁধটি পরিদর্শনে যান পাউবোর প্রকৌশলী ও কর্মকর্তারা।

তিনি জানান, পানির যে চাপ তৈরি হয়েছে তাতে বাঁধটি পুনরায় মেরামতের কাজ শুরু করা কষ্টসাধ্য। আমরা পরিস্থিতি বুঝে কাজ শুরুর জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। সোমবার বিকেলে গোয়ালন্দ পয়েন্টে পদ্মার পানি বিপদসীমার ১১৮ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিলো। এখন পর্যন্ত জেলার সাতটি উপজেলার ৫৪১টি গ্রামে বন্যার পানি প্রবেশের খবর পাওয়া গেছে।

ফরিদপুরের অ্যাডিশনাল এসপি রাশেদুল হাসান জানান, বাঁধ ধসের খবর পেয়ে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে ও সেখানকার আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাদিপুর ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় পুলিশ প্রহরা জোরদার করা হয়েছে।

 ফরিদপুর প্রতিদিন
 ফরিদপুর প্রতিদিন
এই বিভাগের আরো খবর