বৃহস্পতিবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২০   অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৭   ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২

 ফরিদপুর প্রতিদিন
সর্বশেষ:
এবার টেন্ডুলকারকেও ছাড়িয়ে গেলেন কোহলি পদ্মা সেতুতে একসঙ্গে সড়ক ও রেলপথ উদ্বোধন ফরিদপুরে পদ্মা সেতু রেল প্রকল্পের জমি অধিগ্রহণের চেক বিতরণ
৫৩

‘প্রাক্তন’ স্বামীকে মিস করছেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র!

বিনোদন ডেস্ক:

প্রকাশিত: ২০ নভেম্বর ২০২০  

শ্রীলেখা মিত্র। কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী। নানা কারণে প্রায়ই আলোচনায় আসেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও সবসময় সরব তিনি। ১৭ বছর আগে আজকের এই দিনে পরিচালক শিলাদিত্য সান্যালের সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসেছিলেন তিনি। পরে অবশ্য বনিবনা না হওয়ায় তাদের মধ্যে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। 

আজকে বিবাহবার্ষিকীর এই দিনকে কেন্দ্র করে ফেসবুকে বিয়ের মুহূর্তের সাদা-কালো ছবি পোস্ট করেছেন তিনি। সঙ্গে দিয়েছেন মনছোঁয়া ক্যাপশন, ‘আজ হতে পারত আমাদের ১৭তম বিবাহবার্ষিকী। হ্যান্ডসাম না আমার প্রাক্তন? তাই তো আর সেভাবে কাউকে মনে ধরল না...।’ সঙ্গে লিখেছেন বিধিবদ্ধ সতর্কীকরণ, ‘দুঃখের ইমোজি আর শুভ বিবাহবার্ষিকী বললে ততক্ষণাৎ আনফ্রেন্ড করব!’

এ বিষয়ে তিনি গণমাধ্যমের কাছে বলেন, ‘ভারাক্রান্ত নয়, মনে পড়ছে। মনে করছি। আজকের দিনেই তো ভালোবেসে সাত পাক ঘুরেছিলাম। আমার মেয়ের বাবা আফটার অল। তাকে ভুলি বা অস্বীকার করি কী করে?’

স্বামী শিলাদিত্য সান্যালকে উদ্দেশ করে শ্রীলেখা বলেন, ‘একটু খুঁতখুঁতেমি আছে তাঁর এই ব্যপারে। তাই-ই এত বছরেও আর কাউকে বেছে নিতে পারলেন না। এখনও তার চোখে সেরা ‘হ্যান্ডসাম’ তার ‘প্রাক্তন’।

স্বামী শিলাদিত্যও কি বিশেষ দিনে এভাবেই মনে করেন শ্রীলেখাকে? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘নিশ্চয়ই মনে করে! হয়তো আমার মতো করে প্রকাশ করে না। আমাদের মধ্যে কোনও তিক্ততা নেই। ফলে, মনে না করারও কোনও কারণ নেই। তা ছাড়া আমার মধ্যে রসবোধ যথেষ্ট। নিজেকে নিয়ে মজা করতে ভালোবাসি। সেটা আজকের পোস্ট আর ক্যাপশন দেখলেই বোঝা যাবে। আমার কোনও বিষয় নিয়েই ন্যাকামি নেই, সেটাও বুঝে গেছেন অনুরাগীরা।’

২০১৩ সালে স্বামী শিলাদিত্য সান্যালের সঙ্গে শ্রীলেখা মিত্রের বিচ্ছেদ হয়। বিবাহবিচ্ছেদের পর থেকে এখনো মেয়েকে নিয়ে একাই বসবাস করছেন শ্রীলেখা। তবে মেয়ের কারণে এখনো প্রাক্তন স্বামীর বাসায় যাতায়াত করেন শ্রীলেখা।

 ফরিদপুর প্রতিদিন
 ফরিদপুর প্রতিদিন