শনিবার   ২০ জুলাই ২০২৪   শ্রাবণ ৪ ১৪৩১   ১৩ মুহররম ১৪৪৬

 ফরিদপুর প্রতিদিন
২৫২

প্রথমবার সন্তানের মুখ দেখালেন সানা খান

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০ জুলাই ২০২৪  

ধর্মের টানে ১৫ বছরের অভিনয় ক্যারিয়ার ছাড়েন সানা খান। ২০২০ সালে মাওলানা মুফতি আনাস সৈয়দকে বিয়ে করে তিনি এখন পুরোদস্তুর সংসারী। ২০২৩ সালের জুলাই মাসে পুত্র সন্তানের জন্ম দেন সাবেক এই অভিনেত্রী। গত ৫ জুলাই তার ছেলের বয়স এক বছর পূর্ণ হয়েছে। তারপরই অনুরাগীদের ছেলের মুখ দেখালেন সানা।

স্বামী মুফতি আনাস সৈয়দের সঙ্গে হজে গেছেন বলিউডের একসময়ের এই অভিনেত্রী। বাবা-মায়ের সঙ্গে হজযাত্রায় শামিল হয়েছে তাদের এক বছরের ছোট্ট শিশু সৈয়দ তারিক জামিল। হজযাত্রা থেকে ছেলের কিছু মুহূর্ত সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন সানা। ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘আমাদের ছোট্ট হাজি’।

ভিডিওর সঙ্গে সানা লেখেন, ‘ইয়া রব, মুঝে ভি নামাজ কাইম কারনে ওয়ালা বানা দিজিয়ে বা মেরি আউলাদ মে সে ভি (এসে লগ প্যাইদা ফরমাইয়ে জো নামাজ কাইম করে) অ্যাই হামারে পরওয়ারদিগার। অর মেরি দুয়া কুবুল ফার্মা লিজিয়ে। হামারে পরওয়ারদিগার উস দিন মেরি ভি মাগফিরাত ফরমাইয়ে মেরে ওয়ালিদিন কি ভি বা উন সব কি ভি জো ইমান রাখতে হ্যায়’। সূরা ইব্রাহীমের আয়াত ৪০ ও ৪১ থেকে এই লাইনগুলো নিজের পোস্টে লেখেন সানা।

সানা জানিয়েছেন, শেষ মুহূর্তে হজযাত্রার জন্য তার এক বছরের ছেলে ভিসা পেয়েছে। তাই তিনি কৃতজ্ঞ। সানার ভিডিওতে তার ছেলেকেও হাজিদের মতো পোশাক পরতে দেখা গেছে। সানা ভিডিওতে নিজের ছেলের মুখ দেখানোর পাশাপাশি নিজের ধর্ম বিশ্বাসকেও তুলে ধরেছেন।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের অক্টোবরে সবাইকে চমকে দিয়ে বলিউডকে বিদায় জানিয়েছিলেন সানা খান। সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি নিজের সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেন। কারণ হিসাবে জানান, তিনি নিজেকে ইসলামের কাছে সমর্পণ করতে চান। এক মাসের মধ্যে গুজরাটের হীরে ব্যবসায়ী মুফতি আনাসের সঙ্গে বিয়ে সম্পন্ন করেন। বিয়ের পর নিজের নামে বদলে রাখেন সৈয়দ সানা খান।

 ফরিদপুর প্রতিদিন
 ফরিদপুর প্রতিদিন