বৃহস্পতিবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২০   অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৭   ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২

 ফরিদপুর প্রতিদিন
সর্বশেষ:
এবার টেন্ডুলকারকেও ছাড়িয়ে গেলেন কোহলি পদ্মা সেতুতে একসঙ্গে সড়ক ও রেলপথ উদ্বোধন ফরিদপুরে পদ্মা সেতু রেল প্রকল্পের জমি অধিগ্রহণের চেক বিতরণ
৮৫

দ্রুততম সময়ে জনপ্রিয় হচ্ছে নগদ

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৫ নভেম্বর ২০২০  

দ্রুততম সময়ে সর্বনিম্ন খরচে মোবাইলে আর্থিক সেবাদান করে দেশব্যাপী তুমুল জনপ্রিয় হয়ে উঠছে সরকারের ডাক বিভাগের মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’। শহুরে শিক্ষিত সমাজের পাশাপাশি তৃণমূল পর্যায়ে হাতের মুঠোয় ছড়িয়ে পড়েছে নগদের সেবা। সহজলভ্য সেবার জন্য খুদে ব্যবসায়ী, চাকরিজীবী, কৃষক-শ্রমিক, শিক্ষার্থীসহ আপামর জনগণের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে নগদ। অন্যান্য মোবাইলে অর্থ সেবাদানকারী সংস্থাগুলো সেবার মাসুল না কমালেও গ্রাহকদের সেবার কথা চিন্তা করে নগদ লেনদেন খরচ কমিয়ে জনসেবায় হাত বাড়িয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটি এক হাজার টাকা অর্থ উত্তোলনে অ্যাপসের মাধ্যমে ভ্যাটসহ মাশুল ১১ টাকা ৪৯ পয়সা এবং অ্যাপস ছাড়া প্রতি হাজার উত্তোলনে ভ্যাটসহ ১৪ টাকা ৯৪ পয়সায় নামিয়ে এনেছে। কার্যক্রম শুরুর আড়াই বছরের মাথায় এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে নগদ।

তবে এখনো বিকাশ, রকেটসহ অন্য সেবাদাতারা অর্থ উত্তোলনে মাশুল কমায়নি। প্রতিষ্ঠান দুটি কার্যক্রম শুরুর প্রায় এক দশক অতিক্রম করেছে। শুরু থেকেই প্রতি হাজার টাকা উত্তোলনে ১৮ টাকার বেশি মাশুল নিচ্ছে। তবে নগদ মাশুল কমানোয় কিছুটা চাপে পড়েছে অন্য প্রতিষ্ঠানগুলো। ২০১১ সালের মার্চে ডাচ্-বাংলা ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিং সেবা চালু করে। ২০১৬ সালে এ সেবার নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় ‘রকেট’। রকেট সেবায় এজেন্ট থেকে টাকা উত্তোলনে প্রতি হাজারে ১৮ টাকা ৫০ পয়সা খরচ দিতে হচ্ছে। দেশের সবচেয়ে বড় সেবাদাতা ব্র্যাক ব্যাংকের ‘বিকাশ’। ২০১১ সালে কার্যক্রম শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি। বিকাশে এজেন্ট থেকে নগদ উত্তোলনে প্রতি হাজারে ১৮ টাকা ৫০ পয়সা গুনতে হচ্ছে। যার ফলে প্রতিনিয়ত বিকাশের গ্রাহকদের মাঝে অসন্তোষ বৃদ্ধি পাচ্ছে। 

এদিকে সেবা নগদ সম্প্রতি অর্থ উত্তোলনে মাশুল কমিয়ে নিয়ে এসেছে। দেশে বর্তমানে নগদের গ্রাহকসংখ্যা ২ কোটি ১৯ লাখ। অর্থ উত্তোলনে মাশুল ৯ টাকা ৯৯ পয়সা করায় লেনদেন অনেকে বেড়ে গেছে। এতে এজেন্টদের আয়ও অনেক বেড়ে গেছে। তাই মাশুল কমানোয় এজেন্টরা খুশিই হয়েছে। এছাড়া গ্রাহকরা স্বল্প ব্যয়ে দেশের যেকোনো প্রান্তে নগদের মাধ্যমে অর্থ লেনদেন করতে পারায় প্রতিদিনই এর গ্রাহক সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

 ফরিদপুর প্রতিদিন
 ফরিদপুর প্রতিদিন
এই বিভাগের আরো খবর