রোববার   ২৯ জানুয়ারি ২০২৩   মাঘ ১৬ ১৪২৯   ০৮ রজব ১৪৪৪

 ফরিদপুর প্রতিদিন
সর্বশেষ:
পাকিস্তানের সাবেক মন্ত্রীর মুখে বাংলাদেশের উন্নয়ন শেখ হাসিনা তরুণদের ভবিষ্যৎ নিয়ে কাজ করছেন: শামীম ওসমান গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে ফাইনাল রাউন্ডে ব্রাজিল বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যু-শনাক্ত কমেছে
৩৪

দেশের সব আদালতের ভেতরে বাইরে নিরাপত্তা নিশ্চিতের নির্দেশ

নিউজ ডেস্ক:

প্রকাশিত: ১৭ জানুয়ারি ২০২৩  

দেশের সব আদালত ও ট্রাইব্যুনালের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী। এজন্য প্রধান বিচারপতির নির্দেশনায় দেশের সব আদালতের ভেতরে বাইরে নিরাপত্তা নিশ্চিতের নির্দেশ দিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন।

সোমবার (১৬ জানুয়ারি) হাইকোর্ট বিভাগের রেজিস্ট্রার মুন্সী মো. মশিয়ার রহমানের সই করা এক বিজ্ঞপি থেকে এ তথ্য জানা যায়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অধস্তন সব আদালত ও ট্রাইব্যুনালের সার্বিক নিরাপত্তার বিষয়ে প্রধান বিচারপতি গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। সুপ্রিম কোর্ট থেকে এর আগে একাধিকবার দেশের প্রতিটি আদালতের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।

অধস্তন দেওয়ানি আদালতে মোকদ্দমাগুলোর নথিতে বিচারপ্রার্থী জনগণের মূল দলিল বা ডকুমেন্টসহ বিভিন্ন ধরণের গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র থাকে। আদালতের হেফাজতে থাকা এসব দলিলাদি ও গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র চুরি বা নষ্ট হলে আদালতের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হবে। অধস্তন সব আদালত ও ট্রাইব্যুনালের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিতে প্রধান বিচারপতি সংশ্লিষ্ট সবাইকে ১১ দফা নির্দেশনা দেন।

সেগুলো হলো:

১. আদালত ও বিচারকদের বাসভবনের সীমানা প্রাচীর সুসংহত করা।

২. আদালত ও ট্রাইব্যুনালের এজলাস, বিভাগ, প্রতিটি ফটক ও আদালতের বাইরে সিসিটিভি স্থাপন করা।

৩. আদালত ভবনের বাইরে ও ভেতরে নিরাপত্তা প্রহরী দ্বারা সার্বক্ষণিক পাহারা দেওয়া।

৪. আদালত ভবনের দরজা ও জানালাগুলো গণপূর্ত বিভাগ থেকে পরীক্ষা করে গ্রিল আরও মজবুত করা এবং ভাঙা দরজা ও জানালা নতুন করে স্থাপন করা।

৫. আদালত চত্বরে পর্যাপ্ত বৈদ্যুতিক বাতির ব্যবস্থা করা।

৬. মামলা সংশ্লিষ্ট নথিপত্রের নিরাপদ সংরক্ষণের যথাযথ ব্যবস্থা করা।

৭. আদালতে ব্যবহারের নিমিত্ত মানসম্মত ফার্নিচার বা লকার নিশ্চিত করা।

৮. আদালত সীমানার চারিদিকে সিকিউরিটি পোস্ট স্থাপন করা।

৯. জরুরি ভিত্তিতে সারাদেশের আদালত এলাকায় রাতে সার্বক্ষণিক পুলিশের টহল জোরদার করা।

১০. অবকাশকালীন আদালত ভবনের বিশেষ নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া।

১১. প্রত্যেক আদালত ও ট্রাইব্যুনালের কর্মকালীন পর্যাপ্ত পুলিশি পাহারার ব্যবস্থা করা।

 ফরিদপুর প্রতিদিন
 ফরিদপুর প্রতিদিন
এই বিভাগের আরো খবর