শুক্রবার   ১৮ জুন ২০২১   আষাঢ় ৪ ১৪২৮   ০৮ জ্বিলকদ ১৪৪২

 ফরিদপুর প্রতিদিন
সর্বশেষ:
আগামী জুনে চলবে মেট্রো রেলের উত্তরা-আগারগাঁও অংশ বৈশ্বিক শান্তি সূচকে সাত ধাপ উন্নতি বাংলাদেশের গোয়ালন্দে মৎস্য চাষিদের মাঝে মাছের খাদ্য বিতরণ মহম্মদপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এক ব্যতিক্রম স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র আগামী মার্চে শুরু হবে পাতাল রেলের কাজ বার্ড ফ্লুর টিকা তৈরি হচ্ছে ঝিনাইদহে জুলাই থেকে বড় পরিসরে শুরু হবে টিকাদান
৫৫

ছাত্রদলে মাদকসেবীদের পদ দেয়ার পাঁয়তারা!

নিউজ ডেস্ক:

প্রকাশিত: ২৭ মে ২০২১  

পুনর্গঠিত হতে যাচ্ছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) শাখা ছাত্রদলের কমিটি। এ কমিটিকে কেন্দ্র করে হঠাৎ কিছু নিষ্ক্রিয় ও মাদক মামলার আসামি ছাত্রদলের পদ পেতে সক্রিয় হয়ে উঠেছেন।

জানা গেছে, প্রাথমিকভাবে তিন মাসের জন্য ৩১ সদস্যের একটি আহ্বায়ক কমিটি গঠন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় ছাত্রদল। আর হঠাৎ সক্রিয় ও অনুপ্রবেশকারীদের ‘পরিযায়ী’ বলে অভিহিত করেছেন এ ইউনিটের সক্রিয় নেতাকর্মীরা।

এদিকে বর্তমান কমিটির ছাত্রদলের অধিকাংশ নেতার অভিযোগের তীর সেক্রেটারি আব্দুর রহিম সৈকতের বিরুদ্ধে। তার বিরুদ্ধে এরই মধ্যে উন্নয়ন বাজেটের অর্থ কেলেঙ্কারির সময় অর্থের বিনিময়ে আন্দোলন থেকে ছাত্রদলকে নিষ্ক্রিয় রাখার অভিযোগ উঠেছে। পাশাপাশি তিনি সংগঠনে অনুপ্রবেশকারী বলেও অভিযোগ রয়েছে।

এদিকে আব্দুর রহিম সৈকতের বিশ্বস্ত অনুচর হিসেবে পরিচিত ইকবাল হোসাইনও মাদক মামলার আসামি। ২০১৬ সালে চারশ পিস ইয়াবাসহ ধানমন্ডি থানা-পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছিল। সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম সৈকতের ঘনিষ্ঠজন পরিচয়ে তিনি এখন ছাত্রদলের পদ পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন।

২০১৬ সালে জাবি ছাত্রদলের কমিটিতে পদ না পেয়ে নিষ্ক্রিয় হয়ে গিয়েছিলেন হীরন। কিন্তু ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটিতে ফজলুর রহমান খোকন সভাপতি হওয়ার পর হীরন নতুন করে আবারো সক্রিয় হয়েছেন।

গুঞ্জন উঠেছে, অর্থের বিনিময়ে মাদকসেবী, সন্ত্রাসী ও অনিয়মিত ছাত্রদের গুরুত্বপূর্ণ পদে আনার পাঁয়তারা করছে কেন্দ্রীয় ছাত্রদল। ত্যাগী নেতারা অবমূল্যায়িত হলে আগামীতে জাবিতে ছাত্রদল মুখ থুবড়ে পড়বে বলেও অনেকে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

 ফরিদপুর প্রতিদিন
 ফরিদপুর প্রতিদিন
এই বিভাগের আরো খবর