শুক্রবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০২২   অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৯   ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

 ফরিদপুর প্রতিদিন
সর্বশেষ:
রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফিরে যেতে হবে: প্রধানমন্ত্রী সব ক্ষেত্রে শুদ্ধাচার চর্চার আহ্বান আইজিপির ১০ ডিসেম্বর পরিবহন ধর্মঘট থাকছে না ফরিদপুরে চলছে দানা পেঁয়াজ চাষ ফরিদপুর পুলিশের শ্রেষ্ঠ সার্কেল অফিসার সুমন রঞ্জন সরকার চাল আমদানিতে শুল্ক সুবিধার মেয়াদ তিন মাস বাড়ল
১৬২

চরভদ্রাসনে ধানক্ষেতে রাসেল ভাইপার, মারা হলো পিটিয়ে

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭ নভেম্বর ২০২২  

ফরিদপুর চরভদ্রাসনের পার্শবর্তী সদরপুর উপজেলার এক ধানক্ষেত থেকে তিনটি বিষধর রাসেল ভাইপার পিটিয়ে মারা হয়েছে। ওই উপজেলার আকোটেরচর ইউনিয়নের কাজীডাঙ্গী গ্রামে রবিাবার (৬ নভেম্বর) সকালে সাপগুলি মারা হয়। পরে সাপগুলি পুড়িয়ে মাটিতে পুতে রাখা হয়।

ওই গ্রামের বাসিন্দা জয়নাল বেপারীর ছেলে রুবেল মাহমুদ (৩৪) বলেন, গত ১০ অক্টোবর তাদের বাড়ীর পার্শ্ববর্তী ধানক্ষেতে সার দিতে গিয়ে রাজশাহীর খোরশেদ নামের এক দিনমজুর সাপের কামড়ের শিকার হন। পরে তাকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা দিলে একটু সুস্থ হয়ে উঠেন। তিনদিন পর  তার ছেলে খোরশেদকে বাড়ি নিয়ে যায়। এর চারদিন পর তিনি মারা যান। কামড়ের পর তিনি রাসেল ভাইপারের নাম না বলতে পারলেও শুধু বলেন কোট আলা সাপ। এতে তারাও বুঝতে পারেনি আসলে কি সাপে তাকে কামড় দিয়েছে। 

তিনি আরও জানান, এর প্রায় এক মাস পর ধান কাটার জন্য লোক নিয়ে আসেন তারা। ধান কাটার এক পর্যায়ে এক দিনমজুর সাপ বলে চিৎকার করে উঠেন। এসময় অন্যরা এগিয়ে এসে সাপটিকে পিটিয়ে মারেন। সাপটি দৈর্ঘ্যে তিন ফুট লম্বা ছিল। এর ১৫ মিনিট পর দুই ফুট দশ ইঞ্চি দৈর্ঘের এবং তার বিশ মিনিট পর প্রায় দুই ফুট দৈর্ঘের আরো একটি রাসেল ভাইপার মারা পরে জনতার হাতে। পরে সাপগুলি পুড়িয়ে মাটিতে পুতে রাখা হয়। এ ঘটনার পর হতে সাপা আতঙ্কে অনেকেই এখন পাকা ধান কাটতে ক্ষেতে যেতে সাহস পাচ্ছেন না।

 ফরিদপুর প্রতিদিন
 ফরিদপুর প্রতিদিন
এই বিভাগের আরো খবর