মঙ্গলবার   ১৭ মে ২০২২   জ্যৈষ্ঠ ২ ১৪২৯   ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩

 ফরিদপুর প্রতিদিন
সর্বশেষ:
ঢাকা থেকে ভাঙ্গা রেল চালু হবে আগামী বছরের জুনে: রেলমন্ত্রী ফরিদপুরে জসীম পল্লী মেলার উদ্বোধন পাংশায় বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট উদ্ধোধন এবার হজ কার্যক্রম পরিচালনার অনুমতি পেল ৭৮০ এজেন্সি আগামী দুই বছরের মধ্যে পৃথিবী হবে ডাটানির্ভর ডিজিটালের পরবর্তী পদক্ষেপ স্মার্ট বাংলাদেশ
৪৭

এই কোম্পানির কর্মীরা বিয়ে করলেই বাড়ে বেতন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯ মে ২০২২  

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান যখন কর্মী সংকোচন নীতি গ্রহণ করেছে, তখন শ্রী মুকামবিকা ইনফোসল্যুশন (এসএমআই) কর্মীদের দিচ্ছে সুবিধা। এর মধ্যে রয়েছে, এই প্রতিষ্ঠানের কোনো কর্মী যদি বিয়ে করেন, তাহলে তাঁর বেতন বাড়িয়ে দেওয়া হবে। এখানেই শেষ নয়, কর্মীদের সঙ্গী খোঁজার ক্ষেত্রেও সহযোগিতা করে প্রতিষ্ঠানটি।

জানা যায়, কোম্পানিটি বেশ কয়েক বছর ধরে কর্মীদের এমন সুবিধা দিয়ে চলেছে। আর এ কারণে প্রতিষ্ঠানটির কর্মীদের মধ্যে চাকরি ছাড়ার হার মাত্র ১০ শতাংশ। যেখানে ইনফোসিস বা উইপ্রোর মতো নামিদামি প্রতিষ্ঠানেও চাকরি ছাড়ার হার দেখা যায় ২০ শতাংশের বেশি। বর্তমানে এসএমআই কোম্পানিটি ৭৫০ জনেরও বেশি কর্মী নিয়োগ করে। আর তাদের মধ্যে ৪০ শতাংশ কর্মী অন্তত পাঁচ বছর এই কোম্পানিতে থাকেন।

এসএমআইয়ের যাত্রা শুরু হয় ২০০৬ সালে দেশটির তামিলনাড়ুর সিভাকাসিতে। এর পর প্রতিষ্ঠানটির পরিসর বাড়তে থাকলে কর্মী পাওয়া অনেকটা কঠিন হয়ে পড়ে। এ কারণে ২০১০ সালে তারা বাধ্য হয়ে ঐ রাজ্যেরই মাদুরাইয়ে চলে যায়।

প্রতিষ্ঠানটির যাত্রার শুরু থেকেই কর্মীদের বিয়ের বিষয়ে প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। সঙ্গী খুঁজে দেওয়া ও বিয়ে করলে বেতন বৃদ্ধির সুবিধা ছাড়াও তারা আরো একটি নীতি গ্রহণ করে। আর সেটি হচ্ছে বছরে দুবার কর্মীদের বেতন বৃদ্ধি হবে ছয় থেকে আট শতাংশ। গত বছরে করোনা সংক্রমণের কারণে যেখানে ভারতের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান যখন কর্মী সংকোচন নীতিগ্রহণ করেছিল, তখনো এই প্রতিষ্ঠানটি বছরে দুবার বেতন বৃদ্ধি অব্যাহত রেখেছিল। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠানের সেরা কর্মীদের জন্য বিশেষ সুবিধা তো থাকেই।

এসএমআইয়ের প্রতিষ্ঠাতা এমপি সেলভা গণেশ তার প্রতিষ্ঠান নিয়ে বলেন, এখানে বেশ কিছু দীর্ঘমেয়াদি কর্মচারী রয়েছে। তারা অন্য কোথাও যাবে এ ভাবনা তাদের মাথায় আসার সুযোগ দেয় না। এ ধরনের কোনো চিন্তা তাদের মাথায় আসার আগেই আমরা তাদের প্রাপ্য প্রদান করি। কর্মচারীরা যখন কোনো চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হয়, তখন তারা সরাসরি আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

সূত্র: এনডিটিভি

 ফরিদপুর প্রতিদিন
 ফরিদপুর প্রতিদিন
এই বিভাগের আরো খবর